বাংলা ব্যান্ডের গান

শুনলাম কলকাতার নামকরা এক ব্যান্ড,

পাড়ায় আসছে দীপাবলীর জলসায়

এতই নামী যে, তারা নাকি আজ ব্র্যান্ড।

 

ব্যান্ডের গান, জানি না ভালো না মন্দ,

ভাল গানের আশায় গিয়ে যা শুনলাম –

মনে হল সবই বেসুরো, নেই কোন ছন্দ।

 

নিজেরাই গীতিকার, নিজেরাই সুরকার,

তারা সব জিনিয়াস । পনীটেল নাচিয়ে,

গানের নামে শুরু হল চিৎকার।

 

ঝিলিক মারে কানের রিং , মাথায় লম্বা চুল,

বাংলা গানের গায়ক বলে চিনতে হয় ভুল।

 

এবার পেছন ফিরে দাঁড়িয়ে,পনীটেল দেখিয়ে,

দু’খানি হাত ছড়িয়ে, আকাশপানে তাকিয়ে,

লম্ফ ঝম্প দিয়ে করল শুরু গান গাওয়া,

গায়কের কান্ড দেখে, শ্রোতারা তখন দর্শক,

তবুও অপেক্ষায়, যদি কিছু ভালো যায় পাওয়া।

 

প্রস্তুতিতে মনে হল গানের মুর্ছনায় দেবে সব ভুলিয়ে।

চিল চিৎকার আর লাফালাফিতে গেল সব গুলিয়ে।

 

অঙ্গ ভঙ্গিতে বোঝাল, এটা তাদের হিট নাম্বার,

একটা কথাও গেল না বোঝা, চিতকারই হল সার।

 

বিরক্ত, হতাশ হয়ে, আসর ছেড়ে ঊঠে আসি,

গান শুনতে এসে অনেক হল শিক্ষা-

মনে মনে বলি -ছেড়ে দে মা কেঁদে বাঁচি।

 

১৮/১১/২০১৫ by Anil C. Mandal

 

Advertisements